রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের নাগরিক না হয়েও ভাসানচরে উন্নত জীবন যাপনের জন্য সকল সুবিধা পায় দপ্তরীরা পায়না কেন (এনামুল হক বাচ্চু)

রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের নাগরিক না হয়েও ভাসানচরে উন্নত জীবন যাপনের জন্য সকল রকমের সুযোগ-সুবিধা পায়। এমনি কি তাদের পালিত কুকুরটিও তাদের সাথে সকল রকমের সুযোগ-সুবিধা পায় ।

 তবে কেন আমরা বাংলাদেশের নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও  ৩৭ হাজার  দপ্তরী কাম প্রহরী মানবেতর জীবনযাপন করছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন আমাদের চাকরিটি রাজস্ব করণ করে ৩৭ হাজার পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলুন । বর্তমান দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির বাজারে একই বেতনে দীর্ঘ সাতটি বছর ধরে আমরা চাকরি করছি। আমাদের নেই কোনো ছুটি নেই। কোনো উৎসব ভাতা নেই । আমরা স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে আমাদেরকে স্বাধীনভাবে বাঁচার অধিকার নাই । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দয়া করে আমাদের ৩৭০০০ দপ্তরী কাম প্রহরীদের চাকরি রাজস্ব করনের ব্যবস্থা করে সকলের মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলুন যেমনটি করেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে ৩৭ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ এবং যেমনটি করেছেন  আপনি ২০১৩ সালে ২৬ হাজার স্কুল সরকারি এবং শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ মানবতার মা আপনার সদিচ্ছা থাকলে আপনি আমাদেরও একই ব্যবস্থা করতে পারেন।

মোঃ এনামুল হক বাচ্চু

২৪ নং মঠবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। উপজেলা  বাউফল, জেলা পটুয়াখালী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

ব্রেকিং নিউজ